ঘুমন্ত বাবা-মায়ের কোল থেকে চুরি হওয়া শিশুর লাশ ভাসছে পুকুরে

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার গাবতলা গ্রাম থেকে গভীর রাতে ঘুমন্ত মা-বাবার কোল থেকে ১৭ দিনের শিশু চুরির তিনদিন পর শিশুটির লাশ পাওয়া গেল। আজ ভোরে বাড়ির ভেতর পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

 

বুধবার (১৮ নভেম্বর) মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

জানা গেছে, ভোরে শিশুটির দাদা বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে গেলে লাশ ভাসতে দেখেন। এরপর এলাকাবাসী লাশ উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

 

এর আগে সোমবার রাতে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন শিশুটির দাদা মো. আলী হোসেন খান। অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে এ মামলা করেন তিনি।

 

শিশুটির বাবা সুজন খান বলেন, আমাদের মাঝে ঘুমিয়ে ছিল ১৭ দিনের সোহানা। রোববার রাতের খাওয়া শেষে ঘরের আলো বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়ি। সোহানা আমাদের দুজনের মাঝখানে ছিল। রাতে কয়েকবার দুধও খাইয়েছে তার মা। রাত ২টার দিকে উঠে দেখি আমার মেয়ে নেই।

 

মঙ্গলবার সকালে মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, বাবা-মার কোল থেকে নবজাতক খোয়া যাওয়ার ঘটনায় তার দাদা মো. আলী হোসেন খান বাদী অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

সোমবার পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, বাবা-মার কোল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতক সোহানাকে উদ্ধারে ভোর থেকেই অভিযান শুরু করা হয়। নবজাতক সোহানার বাবা সুজন খানের আগেও বিয়ে হয়েছিল। ওই স্ত্রীরও দুই বছরের একটা মেয়ে রয়েছে। এ সন্তান খোয়া যাওয়া পারিবারিক কোনও ষড়যন্ত্র কিনা আমরা তাও খতিয়ে দেখছি।

রোববার (১৫ নভেম্বর) মধ্যরাতের কোনও একসময় মা-বাবার মাঝ থেকে শিশুটি চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্ত