বোমা বানাতে গিয়ে শিবগঞ্জে তাইফুর রহমান নিহত

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:
সন্ত্রাসের জনপদ নামে খ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ পৌরসভাধীন মর্দানা আলম বাজার এলাকায় শুক্রবার দুুপুরে বোমা বানাতে সময় বিস্ফোরনে হাতের কব্জি হারানো যুবক তাইফুর রহমান(৩৬) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। তাইফুর রহমান(৩৬) শিবগঞ্জ ঐ গ গ্রামের মৃত ফজলু মন্ডলের ছেলে ও সাইফুদ্দিনের ছোট ভাই।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, শিবগঞ্জ পৌর এলাকার মর্দানা আলম বাজার গ্রামে তাইফুর রহমান তার ভাই সাইফুদ্দিনের বাড়ীর ছাদে নিজে বোমা বানানোর সময় শুক্রবার দুপুর পৌনে ২টায় হঠাৎ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তাইফুরের ডান হাতের কব্জি উড়ে যায়। বিস্ফোরনে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে উঠে এবং মানুষ ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়ে দিকবিদ্বিগ ছুটাছুটি করে। এ সময় তার আত্মীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাইফুর সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে মারা যায়।

সংবাদটি নিশ্চিত করেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অবস্থান করা শিবগঞ্জ থানার এসআই কামরুজ্জামান। এ শিবগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুল ইসলাম হাবিব জানান, বোমা বানাতে গিয়ে বোমার বিস্ফোরণ ঘটলে তাইফুর গুরুতর আহত হয়। মুখ ঝলসে যায়। পরে তার স্বজনরা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে বোমা তৈরীর উপকরণ উদ্ধার করা হয়েছে সেই সাথে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অন্য একটি সূত্র জানায়, জনৈক মাহবুব হোসেনের ওই বাড়িতে সিএনজি চালক মিজান ভাড়া থাকতো। গত মাসে সে বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। এরপর গত শুক্রবার অপরিচিত দুই ব্যক্তি বাড়িটি ভাড়া নেয়।এ ঘটনায় অপর একজনের এক হাত ও এক পা উড়ে গেছে। বাড়ি থেকে আটটি তাজা ককটেল উদ্ধার করেছে। বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণটি ঘটে বলে পুলিশ ধারণা করছে।

অন্য একটি সূত্র জানায়, জনৈক মাহবুব হোসেনের ওই বাড়িতে সিএনজি চালক মিজান ভাড়া থাকতো। গত মাসে সে বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। এরপর গত শুক্রবার অপরিচিত দুই ব্যক্তি বাড়িটি ভাড়া নেয়।এ ঘটনায় অপর একজনের এক হাত ও এক পা উড়ে গেছে। বাড়ি থেকে আটটি তাজা ককটেল উদ্ধার করেছে। বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণটি ঘটে বলে পুলিশ ধারণা করছে।

ডেস্ক নিউজ

নেট থেকে সংগৃহিত ও অনুবাদকৃত সংবাদ সমূহ অফিসে সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদ গুলো ডেস্ক নিউজ হিসেবে প্রকাশিত হয়।