“সুবর্ণচরে কলেজ শিক্ষকের উপর সন্ত্রাসী হামলা”

সুবর্ণচর (নোয়াখালী) প্রতিনিধি: সুবর্ণচর উপজেলার ওয়াপদা ইউনিয়নের থানার হাটে কলেজ শিক্ষক রহিম উল্লাহ রহমতের উপর সন্ত্রাসী হামলা র ঘটনা ঘটে।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, জায়গা জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রায়ই মহিব উল্লাহ হুজুরের পরিবারের উপর বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাতো সন্ত্রাসী আলাউদ্দিন কালু ,সেলিম ভান্ডারীর লেলিয়ে দেওয়া গুন্ডা বাহিনী।ঘটনার দিন কিছু অস্ত্রধারী মহিলা সন্ত্রাসী ভিকটিমের পিতা মহিব হুজুরের বাড়ীতে অতর্কিত হামলা চালায় এতে প্রতিহত করে কলেজ শিক্ষক রহিম উল্লাহ রহমত।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে থানার হাট বাজারে ডেসটিনি কলেজের শিক্ষক রহমতের উপর সন্ত্রাসী কালু বাহিনীর লোকজন হামলা চালায়।এতে কলেজ শিক্ষকের মাথায় মারাত্নক আহত হওয়ার পর চরজব্বর হাসপাতাল থেকে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।স্থানীয় লোকজন প্রতিবেদককে বলেন,আলাউদ্দিন কালু বাহিনীর অত্যাচারে সাধারণ মানুষ আতংকিত।কালু একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী, মামলাবাজ,জমির দালাল ইতিপূর্বে কয়েকটি পরিবারকে সর্বশান্ত করে দিয়েছে।

এমতাবস্থায় অসহায় কলেজ শিক্ষকের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে এবং আইনের আশ্রয় প্রার্থনা করছে।এলাকার বিক্ষোব্দ জনতা সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছে।আলাউদ্দিন কালুর ভাই সেলিম ভান্ডারী বলেন,কলেজ শিক্ষক রহমতের লোকজন আমার বাড়ীতে ডুকে ছোট ছেলেমেয়েসহ মহিলাদেরকে বেদম প্রহার করে।পরে আমরা রহমতকে ধরে মোক্তার মেম্বারের জিম্মায় রাখি। সেখান থেকে বের হয়ে সে আমার ভাই আলাউদ্দিন কালুকে ঘুষি দিলে পরবর্তীতে তাকে প্রতিহত করা হয়।