৩০ মিনিটেই জানা যাবে করোনা আছে কী না?

শনিবার থেকে দেশে শুরু হচ্ছে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা। প্রাথমিকভাবে ১০ জেলায় এই কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে সরকার। পর্যায়ক্রমে সব জেলায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষার পরিধি বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অ্যান্টিজেন টেস্টে কম সময়ে ফলাফল পাওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে-দ্রুত সময়ের মধ্যে এই টেস্টের পরিধি বাড়ানো গেলে-দেশের করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়া সহজ হবে।

দেশে করোনা সংক্রমণের পর থেকে পরীক্ষা করাতেই হিমশিম খেতে হয়েছে সাধারণ মানুষের। পরীক্ষা করতে সিরিয়াল পেতে দীর্ঘ অপেক্ষা, লাইনে দাঁড়ানোর ভোগান্তি। এসব বিড়ম্বনার পর পরীক্ষা করানো গেলেও-ফল পেতেও আরো অপেক্ষা। এসব কারণে – দ্রুত সময়ে ফলাফল পেতে করোনা অ্যান্টিজেন টেস্টের প্রয়োজনীয়তার কথা বলে আসেছিলেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

 

অবশেষে-নীতিমালা গ্রহণের আড়াই মাস পর শুরু হচ্ছে-অ্যান্টিজেন টেস্ট। দেশের যেসব জায়গায় আরটি পিসিআর টেস্ট এখনও নেই- সেরকম ১০ জেলা দিয়ে শুরু হচ্ছে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা।

 

অ্যান্টিজেন পরীক্ষার জন্য এরইমধ্যে চিকিৎসক, মেডিকেল টেকনোলজিস্টসহ ৩০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে গাইবান্ধা, মুন্সিগঞ্জ, পঞ্চগড়, মাদারীপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, যশোর, মেহেরপুর, সিলেট, জয়পুরহাট ও পটুয়াখালী জেলায় অ্যান্টিজেট টেস্ট শুরু হচ্ছে। যাদের করোনা উপসর্গ আছে তাদেরকেই কেবল এই পরীক্ষা করানো হবে। র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে আধা ঘণ্টার মধ্যে জানা যাবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ হয়েছে কিনা।