al mamun

আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনা বিজয়ী না হলে উন্নয়ন থমকে যাবে : নাসিম

রাজনীতি

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম গতকাল বুধবার বিকালে টাঙ্গাইলে ‘শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজে’র নামফলক উন্মোচন করেছেন। এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হচ্ছে তা এগিয়ে নিতে শেখ হাসিনাকে আগামী নির্বাচনে বিজয়ী করতে হবে। অন্যথায় উন্নয়ন থমকে যাবে।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রোহিঙ্গাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক দৃষ্টি আছে বলেই বিভিন্ন সময়ে তারা দলে দলে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিচ্ছে। তবে এভাবে চলতে পারে না। এ সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত। আন্তর্জাতিকভাবে মিয়ানমারকে বলা উচিত রোহিঙ্গাদের প্রতি নির্যাতন বন্ধ করতে। মিয়ানমার রোহিঙ্গাদেরকে বাংলাদেশের উপর চাপিয়ে দিতে পারে না।

মেডিক্যাল কলেজের উদ্বোধন ঘোষণার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী কলেজের নামকরণ ও মনোগ্রাম উন্মোচন করাসহ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গণে হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক মন্ত্রী জননেতা আব্দুল মান্নানের প্রতিকৃতি উন্মোচন করেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, যদিও সুপ্রিম কোর্ট ষোড়শ সংশোধনী বিষয়ে রায় দিয়েছে, তারপরও আমরা সংসদে বলেছি, এটা আমরা গ্রহণ করতে পারি না। এর প্রতি আমাদের কোনো সমর্থন নাই। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা থেকে কেন আমরা সামরিক ব্যবস্থায় ফিরে যাব। প্রধান বিচারপতি যে কথা পর্যবেক্ষণে বলেছেন সারাদেশে তা নিয়ে নিন্দার ঝড় বয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধুকে ছোট করতে গিয়ে তারা নিজেরাই ছোট হয়ে গেছেন। আমরা মনে করি, প্রধান বিচারপতি এটা অনুধাবন করেছেন, এই পর্যবেক্ষণে বঙ্গবন্ধুকে শুধু বিতর্কিতই করা হয়নি, জাতির পিতাকে ছোট করার চেষ্টা করা হয়েছে। এ পর্যবেক্ষণ প্রত্যাহার করতে হবে। তাকেই উদ্যোগ নিয়ে এ রায় বাতিল করতে হবে। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সংসদ সার্বভৌম, জনগণের নির্বাচিত সংসদ। জনগণের এ সংসদকে কেউ ছোট করতে পারে না। সে বিচার বিভাগ হোক আর প্রশাসনের কেউ হোক। আমি মনে করি, যে আইন আছে তা সকলকে গ্রহণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন, পুলিশ সুপার মাহবুব আলম, শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মোহাম্মদ আলী, সিভিল সার্জন শরিফ হোসেন খান, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. পুতুল রায়সহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে মন্ত্রী হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন।

Leave a Reply